শুক্রবার , নভেম্বর ২৬ ২০২১
Home / বাংলাদেশ / দায়ভার জনগণের যারা প্রতারক চক্রের ফাঁদে পা দেয়

দায়ভার জনগণের যারা প্রতারক চক্রের ফাঁদে পা দেয়

ডেস্ক রিপোর্টঃ আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি সোনার বাংলাদেশ,এদেশে যুগে যুগে কত রং বেরং চরিত্রের মানুষের জন্ম হয়েছে, কেউবা দেশকে লুটে খেয়েছে ও খাচ্ছে দায়িত্ব নেই নি ভাল মন্দের, আবার কেউ জন্ম নিয়েছেন উত্তম চরিত্র নিয়ে দায়িত্ব নিয়েছেন সন্তানের মতো এ মাতৃভূমির, তেমনি এক রত্নাগর্ভা মায়ের সন্তান মাহবুব শাহিন , যিনি প্রতিরোধ করেন অন্যায়ের ও সতর্কতা বার্তা প্রচার করেন, তেমনি একটি পোস্ট নজরে আসে প্রতিদিনের তথ্য. কমের, মিডিয়া নিজের অভিজ্ঞতার কথা উল্লেখ করে নিজের পেইজ বুকে পোষ্ট দিয়েছেন, যা যুব সমাজের জন্য উপকারে আসবে —হুবহু তুলে ধরা হল। ” একবার ভাবলাম লিখব না। দায়ভার জনগণের যারা প্রতারক চক্রের ফাঁদে পা দেয়। কিন্তু যখন আমার বেকার জীবনের একটা ঘটনা মনে পড়ল তখন বাধ্য হলাম পোস্টটা দিতে।
আমি মাস্টার্স পাশ করার পর একটা ইন্টারন্যাশনাল স্কুলে শিক্ষক পদে আবেদন করেছিলাম। এটা ছিল ওয়াক-ইন-ইন্টারভিউ। গিয়ে দেখি বিশাল লাইন। বিজ্ঞপ্তিতে লিখা ছিল ৩০০ টাকার ব্যাংক ড্রাফট কিন্তু যারা নগদ টাকা দিচ্ছিল তাদেরকেও সাক্ষাৎকারের সুযোগ দিচ্ছিল। বুঝতে আর বাকী রইলো না। লাইনের অংশগ্রহণকারীদের তখন বলতে শুনেছিলাম যে প্রায়ই নাকি উক্ত প্রতিষ্ঠান শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি দিয়ে এই কাজ করতো। ২০০০ সালে ৩০০ টাকা দিতে গিয়ে আমার অনেক কষ্ট হয়েছিলো।
প্রতারকেরা একটা না একটা প্রতারণার ছাপ রেখে যায়। একটু খেয়াল করলেই ধরা যায়। আমি বর্তমানে রিচিং আউট অফ স্কুল চিলড্রেন (রস্ক) প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালকের দায়িত্বে আছি। কিছু দিন আগে আমাকে নীলফামারী জেলা থেকে আমাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে নম্বর সংগ্রহ করে ফোন করে জানতে চাচ্ছিল যে আমরা কোন নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দিয়েছি কিনা। ততদিনে তিনি অনলাইনে ভাইবা ও পুলিশ ভেরিফিকেশন বাবদ হাজার দুয়েক ্টাকা খরচ করে ফেলেছেন। আমি তার কাছ থেকে থেকে বিজ্ঞপ্তি সংগ্রহ করে দেখলাম প্রতারক চক্র সারা দেশে বিভিন্ন ক্যটাগরিতে ৮ম শ্রেণী পাশ থেকে শুরু করে মাস্টার্স পাশ অনেক সংখ্যক লোক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে। আমাদের লোগো এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের লোগো ব্যবহার করেছিলো। কিন্তু ঠিকানা ব্যবহার করেছিলো ভিন্ন। আমি তখন র‍্যাবসহ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য লিখেছিলাম।
আজ আবার আমাদের আনন্দ স্কুল নাম দিয়ে প্রকাশিত একটি বিজ্ঞপ্তি আমার হাতে আসে। আমার মনে হয় আমাদের পক্ষ থেকে ব্যবস্থা নেয়ার চাইতে সচেতনতা অনেক জরুরী। হয়তো একজনের ২০০০ টাকা গচ্চা গেছে। কিন্তু প্রতারকেরা ১ লক্ষ লোকের কাছ থেকে কিন্তু ২০ কোটি হাতিয়ে নিচ্ছে।
বাস্তব অবস্থা হচ্ছে, আমাদের রুরালে আনন্দ স্কুল কার্যক্রম শেষ হয়েছে ডিসেম্বর ২০১৯। আর আরবান স্লাম আনন্দ স্কুল কার্যক্রম শেষ হবে ডিসেম্বর ২০২০। প্রকল্পের বাকী কারিগরী ও রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অর্থাৎ শুধু কক্সবাজারের কার্ক্রম শেষ হচ্ছে জুন ২০২১। সুতরাং আমাদের প্রকল্পের জন্য আর কোন লোকবলের প্রয়োজন নেই।

About Pratidiner Tottho

Check Also

প্রধানমন্ত্রীর উপহার গৌরীপুরে ২৫ ভূমিহীন পরিবারকে ভূমিসহ গৃহ

মোঃ আব্দুল লতিফঃ বিশেষ প্রতিনিধি: গৌরীপুর:(ময়মনসিংহ) ”মুজিববর্ষের অঙ্গীকার দেশে থাকবে না ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার” …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!
সর্বশেষ
গৌরীপুরে লকডাউন অমান্য করায় ১৬ মামলায় ১৬৯০০টাকা জরিমানা রূপগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার রহস্য উদঘাটনে বিরোধী দলীয় নেতার আহবান।। গৌরীপুরে লকডাউনের আটদিনে ২০৪টি মামলায়২লাখ ২১ হাজার ৬শ টাকা জরিমানা আদায় লাশের পাশে বসা শিশু মরিয়মকে নওগাঁ পুলিশের অনুদান নেত্রকোণায় লকডাউন পরিদর্শন ও মতবিনিময়ে ময়মনসিংহের রেঞ্জ ডিআইজি ময়মনসিংহ জেলা শহরে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতকরণে চলছে অভিযান ময়মনসিংহের গৌরীপুরে ৫৬ জন করোনা আক্রান্ত পূর্বধলায় লকডাউন বাস্তবায়নে মাঠে রয়েছেন প্রশাসনসহ বিভিন্ন বাহিনী ময়মনসিংহে ৩য় দিন লকডাউন বাস্তবায়নে ৫১২টি মামলা এবং ৩,৮১,৫৭৫/- টাকা অর্থদন্ড জীবন বাঁচলে সুস্থ থাকলে চলাচলের সুযোগ পাবেন-পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আহমার উজ্জামান