রবিবার , এপ্রিল ১১ ২০২১
Home / বাংলাদেশ / দলিল তল্লাশি ও নকল প্রাপ্তির নিয়মাবলী

দলিল তল্লাশি ও নকল প্রাপ্তির নিয়মাবলী

অনেকই দলিল তল্লাশি ও নকল প্রাপ্তির সঠিক নিয়ম না জানার কারণে জঠিলতায় পরে আইন জানার বিকল্প নেই, রেজিস্ট্রেশন আইন ১৯০৮ এর ৫৭(১) ধারা মোতাবেক, প্রয়োজনীয় ফিস পূর্বে পরিশোধ সাপেক্ষে, যে কোন ব্যক্তি ১ নং (স্থাবর সম্পত্তি সংক্রান্ত দলিলের) ও ২ নং (রেজিস্ট্রি করতে অস্বীকার করা দলিলের) রেজিস্টার বহি ও ১ নং রেজিস্টার বহি সম্পর্কিত সূচিবহি পরিদর্শন করতে পারে এবং উক্ত আইনের ৬২ ধারার বিধানাবলি সাপেক্ষে উক্ত বহিসমুহে লিপিবদ্ধ বিষয়ের নকল (অর্থাৎ দলিলের সার্টিফাইড কপি) গ্রহন করতে পারে।

একই আইনের ৫৭(২) ধারা মোতাবেক, প্রয়োজনীয় ফিস পূর্বে পরিশোধ সাপেক্ষে, দলিল সম্পাদনকারী বা তার এজেন্ট এবং সম্পাদনকারীর মৃত্যুর পর (পূর্বে নয়) যে কোন আবেদনকারী ৩ নং বহি (নিবন্ধিত উইলের রেজিস্টার বহি) তে লিপিবদ্ধ বিষয়ের (অর্থাৎ উইল বা অছিয়ত দলিলের নকল বা সার্টিফাইড কপি) এবং ৩ নং বহি সম্পর্কিত সূচিপত্রের নকল গ্রহন করতে পারে।

একই আইনের ৫৭(৩) ধারা মতে, প্রয়োজনীয় ফিস পূর্বে পরিশোধ সাপেক্ষে, দলিলের সম্পাদনকারী বা দাবীদার ব্যক্তি বা তার এজেন্ট অথবা প্রতিনিধি ৪ নং বহিতে লিপিবদ্ধ বিষয়ের নকল গ্রহন করতে পারে।

একই আইনের ৫৭(৪) ধারা মতে, ৩ নং ও ৪ নং বহিতে লিখিত বিষয়ের তল্লাশি, সাব-রেজিস্ট্রার এর মাধ্যমে করা যাবে।

কিভাবে তল্লাশ করবেন?

যদি মূল দলিল থাকে- রেজিস্ট্রি অফিসে দলিলের রেজিস্ট্রি কার্যক্রম শেষ হলে মূল দলিলের শেষ পৃষ্টার উল্টোদিকে “দলিলটি কত সালের, কত নম্বর বালাম বইয়ের, কত পৃষ্ঠা থেকে কত পৃষ্ঠায় নকল করা হয়েছে” তা লিখে সাব-রেজিস্ট্রার কর্তৃক স্বাক্ষর করা হয়। এটা থেকে সহজেই রেজিস্ট্রি অফিসে থেকে দলিলের নকল উঠানো যায়।

মূল দলিল না থাকলে- রেজিস্ট্রি অফিসে দলিল রেজিস্ট্রি শেষ হলে দলিলের গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি তথ্য নিয়ে সূচিবহি তৈরি করা হয়। একটি সূচিবহি তৈরি হয় দলিলে উল্লিখিত জমির দাতা/বিক্রেতা, গ্রহিতা/ক্রেতা বা অন্য কোন পক্ষের নাম দিয়ে, আর একটি তৈরি হয় জমির মৌজার নাম দিয়ে।

দলিলের নকল প্রাপ্তির আবেদনের নিয়মাবলিঃ

রেজিস্ট্রেশন বিধিমালা ২০১৪ এর ১০৮ অনুচ্ছেদে সূচিবহি তল্লাশ ও দলিলের নকলের জন্য আবেদনের নিয়মাবলী লিপিবদ্ধ আছে।

এ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, যে সকল ক্ষেত্রে তল্লাশ ও পরিদর্শনের জন্য কোন ফিস পরিশোধযোগ্য নহে, সে সকল ক্ষেত্র ব্যতিত, সকল ক্ষেত্রে নকলের জন্য আবেদন দাখিল করিবার পূর্বে (৩৬ নং ফরম অনুযায়ী) তল্লাশ ও পরিদর্শনের জন্য আবেদন করিতে হইবে। এরপর ৩৭ নং ফরমে নকলের জন্য আবেদন করিতে হইবে।

About Pratidiner Tottho

Check Also

আজ থেকে সাতদিনের ‘লকডাউন,শুরু হল মানতে হবে বিধিনিষেধ

প্রতিদিনের তথ্য. কম ডেস্ক : করোনাভাইরাসের সংক্রমণ সামাল দিতে আজ সোমবার থেকে সাতদিন গণপরিবহন চলাচল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!
সর্বশেষ
ময়মনসিংহে ডিবি পুলিশের অভিযানে ২জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার ধোবাউড়া প্রেসক্লাবের কমিটি ঘটিত সভাপতি হাবিবুর,সম্পাদক মঞ্জুরুল দৈনিক ইত্তেফাকের নির্বাহী সম্পাদক হাসান শাহরিয়া আর নেই কর্মধা ইউনিয়নের পূর্ববাবনিয়া সমাজ কল্যাণ সংগঠনের কমিটি গঠন ময়মনসিংহ সদর উপজেলার চরাঞ্চলের সোনালি ফসলে রুপালি রং ময়মনসিংহে থানা ও ডিবি পুলিশের যৌথ জনসচেতনতামূলক মহড়া আজ থেকে সাতদিনের ‘লকডাউন,শুরু হল মানতে হবে বিধিনিষেধ কুলাউড়ায় সরক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন নির্বাচনে সভাপতি রুমান সম্পাদক রিপন বগুড়ার শেরপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালত ট্রাক মালিককে অর্থদন্ড বন্টন মামলার জন্য কি কি প্রয়োজন?